fbpx

ডাক বিভাগের ডিজিটাল লেনদেন

গ্রাহকের অ্যাকাউন্ট নিবন্ধনের জন্য প্রযোজ্য শর্তাবলি

 

১। থার্ড ওয়েভ টেকনোলজিস লিমিটেড-এর ‘নগদ’ নামে উল্লিখিত ডিজিটাল ফিন্যান্সিয়াল সার্ভিস (নগদ সেবা) গ্রহণকারী নগদ গ্রাহক নামে পরিচিত হবেন এবং একমাত্র উক্ত গ্রাহকই ডিজিটাল ফিন্যান্সিয়াল সার্ভিস অ্যাকাউন্টটির (নগদ অ্যাকাউন্ট) ব্যবহারকারী হবেন।

২। বাংলাদেশের প্রচলিত আইন, বাংলাদেশ ডাক বিভাগ ও অন্যান্য নিয়ন্ত্রণকারী কর্তৃপক্ষ কর্তৃক জারিকৃত ডিজিটাল ফিন্যান্সিয়াল সার্ভিস সরবরাহের জন্য প্রযোজ্য বিধি-বিধান, নীতিমালা, সার্কুলার এবং আদেশ/নির্দেশ অনুযায়ী নগদ সেবা এবং নগদ অ্যাকাউন্ট-এর লেনদেন/কার্যক্রম পরিচালিত হবে। নগদ গ্রাহক উক্ত নীতিমালা মেনে চলতে বাধ্য থাকবেন।

৩। প্রযোজ্য ক্ষেত্রে নগদ অ্যাকাউন্ট নাম্বারটি নগদ সম্পর্কিত সব রকম দলিলে সঠিকভাবে উল্লেখ করতে হবে। ভুল নাম্বার উল্লেখ করার কারণে কোন রকম ক্ষয় ক্ষতির জন্য নগদ কর্তৃপক্ষ দায়ী থাকবে না।

৪। নগদ অ্যাকাউন্ট-এ পর্যাপ্ত ব্যালেন্সের অভাবে লেনদেন সম্পন্ন না হলে তার জন্য নগদ দায়ী থাকবে না এবং এ সংক্রান্ত চার্জ নিয়ম অনুযায়ী গ্রাহককে বহন করতে হবে।

৫। নগদ গ্রাহক কাউন্টার ত্যাগ করার পূর্বে তার নগদ অ্যাকাউন্ট থেকে যথাযথ পরিমাণ ক্যাশ ইন/ ক্যাশ আউট/ পেমেন্ট ইত্যাদি সম্পন্ন হয়েছে কিনা সে ব্যাপারে নিশ্চিত হবেন। পরবর্তীতে কোন অভিযোগ গ্রহণযোগ্য হবে না। গ্রাহক অ্যাকাউন্ট থেকে নগদ প্রয়োজন অনুসারে কার্ড সম্পর্কিত ফি এবং চার্জ কেটে নিতে পারে। কোম্পানির নিয়মানুযায়ী কার্ডের ব্যবহার ও কার্ড ব্যবহারের খরচ পরিবর্তন হতে পারে।

৬। নগদ গ্রাহক/ নগদ সেবা ব্যবহার করে প্রতিটি লেনদেনের পূর্বে প্রাপকের যথার্থতা নিশ্চিত করবেন। প্রযোজ্য ক্ষেত্রে নগদ অ্যাকাউন্ট নাম্বার, টাকার পরিমাণ, গোপন নাম্বার এবং লেনদেন সংক্রান্ত তথ্য দেয়ার সময় সতর্ক থাকবেন। লেনদেন করার সময় কোনরকম ভুল তথ্য বা নির্দেশনা প্রদান করলে বা কোন প্রকার প্রলোভন, মিথ্যা উপস্থাপনা বা প্রতারণার শিকার হয়ে কোন লেনদেন করলে, এর জন্য একমাত্র গ্রাহকই ব্যক্তিগতভাবে এবং এককভাবে দায়ী থাকবেন। নগদ কোনভাবেই উক্ত লেনদেনকৃত অর্থ ফেরত প্রদানের দায়িত্ব গ্রহণ কিংবা বহন করবে না।

৭। নগদ সেবা সংশ্লিষ্ট সকল প্রকার মূল্য ও ব্যয় (বৈধ মূসকসহ) এবং নিয়মানুযায়ী সকল সেবা মূল্য এবং/অথবা রক্ষণাবেক্ষণ খরচ সময়ে সময়ে নির্ধারণ, পরিবর্তন, পরিবর্ধন ও সমন্বয়ের ক্ষমতা নগদ সংরক্ষণ করে এবং এই সকল খরচ নগদ অ্যাকাউন্ট থেকে কেটে নেয়া হবে।

৮। মানি লন্ডারিং প্রতিরোধ আইন-২০১২, সন্ত্রাস বিরোধী আইন-২০০৯, বাংলাদেশ ডাক বিভাগ কর্তৃক জারিকৃত সার্কুলার/নীতিমালা অনুযায়ী নগদ গ্রাহক, নগদ-এর চাহিদা মোতাবেক যেকোন তথ্য নগদ-কে প্রদান করতে বাধ্য থাকবেন।

৯। নগদ গ্রাহকের অ্যাকাউন্ট ও লেনদেন সংক্রান্ত তথ্যের ক্ষেত্রে নগদ সর্বোচ্চ গোপনীয়তা বজায় রাখবে। তবে নিম্নলিখিত যে কোন ক্ষেত্রে নগদ গ্রাহক সম্পর্কিত যেকোন তথ্য প্রকাশ/প্রদান করার ক্ষমতা সংরক্ষণ করে-

 

১০। নগদ গ্রাহক, তার নগদ অ্যাকাউন্ট-এর গোপন নাম্বার (PIN) কখনই কারো কাছে প্রকাশ করবেন না এবং এর সর্বোচ্চ গোপনীয়তা ও সুরক্ষা নিশ্চিত করার জন্য ব্যক্তিগতভাবে ও এককভাবে দায়ী থাকবেন। গোপন নাম্বারের গোপনীয়তা ভঙ্গ বা অপব্যবহারের আশঙ্কা দেখা দিলে অবিলম্বে তা পরিবর্তন করে ফেলবেন। নগদ গ্রাহক কর্তৃক অবহেলা, অসতর্কতা, ভুল বা গোপন নাম্বারের কোন প্রকার অপব্যবহারের কারণে নগদ গ্রাহক কোনভাবে প্রতারিত এবং/অথবা ক্ষতিগ্রস্ত হলে নগদ কোনভাবেই দায়ী থাকবে না। মোবাইল ফোন বা সিম হারিয়ে গেলে নগদ গ্রাহক তাৎক্ষণিকভাবে নগদ হেল্পলাইনে (16167) ফোন করে নগদ অ্যাকাউন্ট বন্ধ করে দেবেন এবং পরবর্তী পদক্ষেপের জন্য নগদ-এর সাথে যোগাযোগ করবেন। নগদ কার্ড (স্ক্র্যাচ কার্ড, পোস্টাল ক্যাশ কার্ড, ভার্চুয়াল কার্ড ইত্যাদি) হারানো সম্পর্কে অবহিত করার পূর্বে কোন অননুমোদিত লেনদেনের জন্য নগদ দায়ী থাকবে না।

১১। নগদ গ্রাহক সর্বদা তার নগদ অ্যাকাউন্ট ব্যবহার করে যেকোন প্রকার আর্থিক লেনদেন সম্পর্কিত ব্যবসা করা থেকে বিরত থাকবেন। নগদ গ্রাহক যদি এই ফর্মের শর্তাবলি লঙ্ঘন করেন বা করার চেষ্টা করেন অথবা নগদ-এর বিবেচনায় নগদ গ্রাহকের লেনদেন আচরণ সন্দেহজনক হলে, গ্রাহকের বিরুদ্ধে কোন অভিযোগ থাকলে, নিরাপত্তাজনিত বা অন্য যে কোন যুক্তিসঙ্গত কারণে পূর্ব নোটিশ প্রদান ব্যতিরেকে নগদ যে কোন সময় নগদ গ্রাহকের অ্যাকাউন্ট স্থগিত করা, বাতিল করা, বন্ধ করা বা নগদ-এর বিবেচনায় সঠিক অন্য যে কোন প্রকার শাস্তিমূলক বা আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করার অধিকার সংরক্ষণ করে। এক্ষেত্রে নগদ-এর সিদ্ধান্তই চূড়ান্ত ও গ্রাহকের জন্য বাধ্যতামূলক হবে।

১২। নগদ গ্রাহক সর্বদাই নগদ কর্তৃক যেকোন মাধ্যমে তার কাছে প্রেরিত নির্দেশনাসমূহ মেনে চলতে বাধ্য থাকবেন। অন্যথায় যথাযথ তদন্ত সাপেক্ষে নগদ উক্ত নগদ গ্রাহকের অ্যাকাউন্ট স্থগিত করা বা বাতিল করাসহ গ্রাহকের বিরুদ্ধে যেকোন প্রকার সংশোধনমূলক বা আইনগত ব্যবস্থা নিতে পারবে। এক্ষেত্রে নগদ-এর সিদ্ধান্তই চূড়ান্ত ও গ্রাহকের জন্য বাধ্যতামূলক বলে গণ্য হবে। তদন্ত চলাকালীন নগদ গ্রাহকের অ্যাকাউন্ট স্থগিত করে রাখার ক্ষমতা সংরক্ষণ করে। তবে এসএমএস/ফোন কলের মাধ্যমে যদি গ্রাহককে কোন লেনদেন করতে বলা হয় বা গোপন নাম্বার বা অ্যাকাউন্ট সম্পর্কিত তথ্যাদি প্রকাশ করতে বলা হয়, তবে নগদ গ্রাহক নগদ কর্তৃপক্ষের কাছ থেকে যাচাই করা ব্যতীত কোনভাবেই সেই লেনদেন করবেন না।

১৩। নগদ অ্যাকাউন্ট সংশ্লিষ্ট সিম কার্ড এবং সিম কার্ড প্রতিস্থাপন সংক্রান্ত যাবতীয় বিষয়াদির জন্য একমাত্র নগদ গ্রাহকই দায়ী থাকবেন। নগদ এই সংক্রান্ত কোন দায়দায়িত্ব বহন করবে না। নিজের কার্ড দিয়ে করা সকল লেনদেন এবং কার্ডের নিরাপত্তা নিশ্চিত করা গ্রাহকের দায়িত্ব। গ্রাহক নগদ কর্তৃক প্রদত্ত সকল জিনিসের (স্ক্রাচ কার্ড, পোস্টাল ক্যাশ কার্ড, ভার্চুয়াল কার্ড নাম্বার) নিরাপত্তা নিশ্চিত করবেন। এ সকল জিনিসের নষ্ট  হওয়া বা হারানোর কারণে গ্রাহকের কোন আর্থিক ক্ষতি হলে তার জন্য গ্রাহক নিজেই দায়ী থাকবেন।

(ক) মালিকানা প্রমাণ করার জন্য গ্রাহককে অবশ্যই কার্ডের পেছনে স্বাক্ষর করতে হবে।

(খ) এই চুক্তি ছাড়াও, নগদ-এর অ্যাকাউন্ট পরিচালনা বিষয়ক বর্তমান নিয়ম ও শর্তাবলি কার্ডের ক্ষেত্রেও প্রযোজ্য হবে। যদি এই চুক্তি ও অ্যাকাউন্ট পরিচালনা বিষয়ক বর্তমান নিয়ম ও শর্তাবলির ভেতরে কোন দ্বন্দ্ব বা অসঙ্গতি দেখা দেয়, তবে এই চুক্তি বাতিল করা হবে।

১৪। নগদ অ্যাকাউন্ট সংশ্লিষ্ট সিম কার্ড প্রতিস্থাপন হলে সংশ্লিষ্ট মোবাইল নেটওয়ার্ক অপারেটরের কাছ থেকে প্রতিস্থাপন সংক্রান্ত তথ্য পাওয়ার পর নগদ উক্ত অ্যাকাউন্টটির কার্যক্রম বন্ধ করে দেবে। অন্তত ২৪ ঘণ্টা উক্ত নগদ অ্যাকাউন্টটি স্থগিত থাকবে। শুধুমাত্র গ্রাহকই তার নিজের কার্ড ব্যবহার করতে পারবেন।

১৫। নগদ গ্রাহককে কোন পূর্ব ঘোষণা প্রদান ব্যতিরেকে নগদ যেকোন সময়ে যে কোনভাবে বর্তমান নিয়মাবলী সংশোধন, সংযোজন, বিয়োজন, পরিবর্ধন ও পরিবর্তন করার ক্ষমতা সংরক্ষণ করে, যা সময়ে সময়ে নগদ-এর ওয়েবসাইটে আপডেট করা হবে। নিয়মাবলির সর্বশেষ সংস্করণ গ্রাহক যে কোন সময়ে ওয়েবসাইট থেকে দেখে নিতে পারবেন। ফর্ম-এ উল্লিখিত শর্তাবলি ও ওয়েবসাইট সংস্করণের মধ্যে দ্বন্দ্ব দেখা দিলে ওয়েবসাইট সংস্করণ প্রাধান্য পাবে।

১৬। নগদ উপযুক্ত নিয়মনীতি অনুসারে যে কোন সময় নগদ গ্রাহকের কাছে প্রচার সংক্রান্ত আইভিআর (IVR), ফোন কল অথবা এসএমএস পাঠানোর অধিকার সংরক্ষণ করে।

১৭। নগদ গ্রাহক তার নগদ অ্যাকাউন্ট সম্পূর্ণরূপে বন্ধ করে দিতে চাইলে, উক্ত অ্যাকাউন্ট-এ জমাকৃত টাকা শুধুমাত্র যেকোন নগদ সেবা ব্যবহার করা সাপেক্ষে শূন্য (Nil Balance) করে অ্যাকাউন্ট বন্ধ করতে পারবেন।

১৮। নগদ অ্যাকাউন্টে জমাকৃত টাকার উপর কোন প্রকার সুদ প্রদান করার মানদন্ড বা হার নির্ণয় করার যাবতীয় অধিকার নগদ সংরক্ষণ করে। নগদ গ্রাহক সুদ গ্রহণ করতে অনিচ্ছুক হলে নগদ হেল্পলাইন (১৬১৬৭)-এ ফোন করে তা বন্ধ করতে পারবেন।

১৯। কোন প্রকার অপ্রত্যাশিত বা অনিবার্য কারণবশতঃ গ্রাহকের নগদ অ্যাকাউন্ট চালু করতে বা কোন সেবা প্রদান করতে বিলম্বের কারণে নগদ কর্তৃপক্ষ কোনভাবেই দায়ী হবে না। নগদ কোন প্রকার প্রতিজ্ঞাবদ্ধ না হয়ে নগদ সেবা সফলভাবে প্রদান করার জন্য সর্বোচ্চ প্রচেষ্টা করে যাবে।

২০। নগদ গ্রাহক, নগদ সেবা সংক্রান্ত যেকোন অভিযোগ নগদ সেন্টার বা নগদ হেল্পলাইন (১৬১৬৭) -এ ফোন করে অথবা মেইল করে লেনদেনের সর্বোচ্চ ১০ দিনের মধ্যে জানাতে পারেন। নগদ সবসময়ই নগদ গ্রাহকের লেনদেন সম্পর্কিত কোন দ্বন্দ্ব বা অভিযোগ মীমাংসা করার জন্য তদন্ত পরিচালনা, অভিযোগকারী এবং/অথবা অভিযুক্ত নগদ গ্রাহককে নগদ-এর প্রধান কার্যালয়ে ডেকে পাঠানো, নগদ গ্রাহকের অ্যাকাউন্ট স্থগিত করা, বন্ধ করা, নিষ্পত্তি করাসহ নগদ-এর বিবেচনায় সঠিক যে কোন সংশোধনমূলক বা আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করার অধিকার সংরক্ষণ করে।

(ক) কার্ড সংঘটিত যে কোন লেনদেনের রেকর্ড চূড়ান্ত বলে বিবেচ্য হবে এবং সকল ক্ষেত্রে প্রযোজ্য হবে।

(খ) কার্ড হারিয়ে গেলে/চুরি হয়ে গেলে গ্রাহককে সাথে সাথে নগদ কল সেন্টারে ফোন করে জানাতে হবে। নগদ এ বিষয়ে জানার পূর্বেই কার্ডের মাধ্যমে অননুমোদিত কোন লেনদেন হলে তার জন্য নগদ দায়ী থাকবে না।

২১। নগদ সিস্টেমে সংরক্ষিত লেনদেন সংশ্লিষ্ট যাবতীয় তথ্যাদি যেকোন দ্বন্দ্ব নিরসনে প্রাথমিক প্রমাণাদি হিসেবে বিবেচ্য হবে।

২২। নগদ কার্ড ব্যবহারের ক্ষেত্রে উপরোল্লিখিত শর্তাবলির পাশাপাশি নগদ কার্ডের জন্য প্রযোজ্য শর্তাবলিও প্রযোজ্য হবে। উভয় শর্তাবলির মধ্যে কোন বিরোধ দেখা দিলে অত্র শর্তাবলি প্রাধান্য পাবে।